‘প্রতিযোগিতা নেই, ও আরও ভালো করুক’, দিব্যানির সাফল্য দেখে কি বললেন অন্বেষা

একের পর এক নতুন ধারাবাহিক শুরু হয়েই চলেছে বাংলা টেলিভিশনের পর্দায়। স্টার জলসা (Star Jalsha) আর জি বাংলা (Zee Bangla ) একে অপরকে টক্কর দিতে সদাই প্রস্তুত। একই সময়ে দুই বিপরীত চ্যানেলে শুরু হয়েছে দুটি বাংলা ধারাবাহিক। এদের স্লট (Time Slot) পর্যন্ত এক। কিন্তু টিআরপি তালিকায় পয়েন্টের ব্যবধান বেশ খানিকটা। প্রতিপক্ষ চ্যানেলের হয়ে কাজ করছে এই দুই অভিনেত্রী। তাহলে কি শুরু হয়ে গেছে প্রতিযোগিতা? এবার কি বাংলা টেলিভিশনের জগতেও দেখা যাবে ক্যাট ফাইট? জেনে নিন বিস্তারিত।

সন্ধ্যা ৭ টা বেজে ৩০ মিনিটে স্টার জলসা আর জি বাংলার পর্দায় একসাথে শুরু হয় ২ টি ধারাবাহিক। জি বাংলায় শুরু হয় ‘ফুলকি’ (Phulki) আর স্টার জলসায় শুরু হয় ‘সন্ধ্যাতারা’ (Sandhyataara)। ‘ফুলকি’ -তে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন দিব্যানী মন্ডল (Divyani Mondal)। আর ‘সন্ধ্যাতারা’য় প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন অভিনেত্রী অন্বেষা হাজরা (Anwesha Hajra)। ১২ ই জুন থেকে শুরু হয়েছে ফুলকি। টেলিকাস্ট এর সময় থেকেই এটি দর্শকদের মন দিতে নিয়েছে। তাই টিআরপি তালিকায় নিজের জায়গা ধরে রাখতে পারছে এই ধারাবাহিক। এই সপ্তাহেও তার অন্যথা হয়নি। কিন্তু অন্যান্য সপ্তাহের তুলনায় পয়েন্ট বদলেছে এই ধারাবাহিকের।

Annwesha-Hazra
Annwesha-Hazra

এই সপ্তাহে ‘অনুরাগের ছোঁয়া’ -কে হারিয়ে বেঙ্গল টপার হয়েছে ‘জগদ্ধাত্রী’। এই ধারাবাহিকের প্রাপ্ত নম্বর ৮.৫। আর ‘অনুরাগের ছোঁয়া’ -র প্রাপ্ত নম্বর ৮.৪। এই সপ্তাহের দ্বিতীয় স্থানে আরেকটি ধারাবাহিক রয়েছে। সেটি হলো ফুলকি। একই স্লটে টেলিকাস্ট হওয়া সত্ত্বেও অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে সন্ধ্যাতারা। এই সপ্তাহে মাত্র ৬.৪ পয়েন্ট পেয়েছে এই ধারাবাহিক। কিন্তু টিআরপি নিয়ে কোন উদ্বেগ নেই অন্বেষা হাজরার মনে।

অন্বেষা হাজরা কখনোই টিআরপি নিয়ে ভাবেননি। টিআরপি বেশি আসলেও তিনি নাচানাচি বা মাতামাতি কখনোই করেননি। আর কম আসলেও দুঃখ পাননি। তিনি জানেন টিআরপি কম আসলেও তাকে ১৪ ঘণ্টা কাজ করতে হবে আর বেশি আসলেও ১৪ ঘন্টাই কাজ করতে হবে। তিনি শুধু দর্শকদের মন জিততে চান। তিনি জানিয়েছেন, ফুলকির সাথে কম্পিটিশন করতে তিনি আসেননি। তিনি বিশ্বাস করেন চিত্রনাট্যে।